হোম ব্যক্তিত্ব এসএইচ সোহেল ফ্রিল্যান্সিং এর পরিবেশ – নতুনদের জন্য আর্শিবাদ!

ফ্রিল্যান্সিং এর পরিবেশ – নতুনদের জন্য আর্শিবাদ!

53
আমাদের দেশ এগিয়ে যাচ্ছে- এটি নিঃসন্দেহে বাস্তব । আমার অনেকে ফ্রিল্যান্সিং করি- এটাও সত্যি । ভালো একজন ফ্রিল্যান্সার হতে চাই – এটিও বাস্তব। কিন্তু কথা হলো যে আপনি যদি অনলাইনে কাজ করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই দক্ষতা অর্জন করতে হবে। মানে স্কিলপুল হতে হবে। অর্থ্যাৎ যেকোনো একটি বিষয়ে স্কিল অর্জন করতে হবে। এক কথায় একটি কাজে ইউনিক হতে হবে।
 

ফ্রিল্যান্সিং এর পরিবেশ – নতুনদের জন্য আর্শিবাদ!

স্কিল অর্জন ছাড়া যদি আপনি অনলাইনে কাজ করতে আসেন তাহলে অন্যান্যদের কাজের পরিবেশতো নষ্ট হবে ; তাছাড়া সাথে সাথে নিজের আত্মবিশ্বাসও নষ্ট হবে। তাছাড়া আপনি বুঝবেন না কোন কাজের কত দাম নিতে হয় বা দিতে হয়। এজন্য বললাম পরিবেশ নষ্ট হবে।
 
আবার অনেকে বলে বসতে পারেন – “আমরা কাজ করলে আপনার ভাত কি কমে যাবে???”। আমি বলবো কমে যাবে। ধরেন, আগে আমি যে কাজ 100 ডলার দিয়ে করতাম আপনি সেকাজ 5 ডলার পর্যন্ত বায়ারদের অর্ডার করছেন। তা থেকে বুঝা যায় ফ্রিল্যান্সারদের পরিবেশ নষ্ট করা মানে ’আপনি নিজের পায়ে নিজে কুরাল মারলেন’। কারণ আপনিও ফ্রিল্যান্সার হতে যাচ্ছেন। আসা করি বিষয়টি মনে রাখবে ; বুঝতে চেষ্টা করবেন। আর গালি দিতে মন চাইলে ইচ্ছা মতে গালি দিবেন।
 
এটা তো গেলো ফ্রিল্যান্সারদের কথা!!! এবার আসি আমাদের দেশীয় বা উপমহাদেশীয় বায়ারদের কথা । আমার মাঝে মধ্যে তাদেরকে ভিনগ্রহের প্রানী মনে হয়। মনে হয় তারা এই মাত্র আমাদের গ্রহে পা রাখলো।
 
একটি কাজের দাম আছে 500 ডলারের হলে তারা অফার করবে 50 ডলারে !!! তখন মনে হয় নিজেেই নিজের সমাধি রচনা করি। তা বলে শান্ত নই!!! সম্পূর্ণ কাজ উনাকে ফ্রি দিতেও অফার করবে। মাঝে মধ্যে তো কাজ করে সাবমিট করার পর আর কোনো পাত্তা নেই। মার্কেট প্লেসে করলে তো অর্ডারের টাকা পাবেন যদিও রিভিউ না পান। কিন্তু অফলাইনে বা ফেইসবুক থেকে অর্ডার নিয়ে করলে তো আর কোনো কথায় নেই। কাজ শেষ হবার পর ফেইসবুক আইডি ও নাম্বারটাও ব্লক দিস্টে পেলে রাখবে। ইমু , হোয়াটএপ্স কোনো জায়গায় আপনি খুঁজে পাবেন না।
 

ফ্রিল্যান্সিং এর পরিবেশ – নতুনদের জন্য উদাহরণ!

একটা উদাহরণ : সেদিন একজন আমাকে ফেইসবুকে নক করলো,
‘ ভাই, আমার একটি ডেক্সটপ বেস্ড রেজাল্টশীটে সফ্টওয়্যার লাগবে।’
আমি বললাম,’ভালো কথা । কত টাকা বাজেট আছে???’।
উনি বললেন, ‘ভাই, আমি এন্ড্রয়েড এপ বানানোর কোর্স করেছি। আমি HTML, CSS , JavaScript পারি। যদি বলেন আমি আপনাকে হেল্প করতে পারবো।’
আমি বললাম, ‘সেগুলো আপনার ডেস্কটপ এপের জন্য কোনো ভাবে লাগবে না। ’
উনি বললেন, ‘ভাই, আপনি কোন প্লাটফর্মে করবেন?’
আমি বললাম, ‘ADO.NET এবং SQL Server
উনি বললেন, ‘ভাই, আমাকে কোড সহকারে দিতে হবে।
আমি বললাম, ‘Sorry, We never provide code to buyer’ !!! আপনি যদি আমাদের থেকে কোড চান তাহলে 3 লক্ষ টাকা দিতে হবে। তাও আবার এককালীন। আর আপনি যদি চান হলে আপনাকে আমরা এপ্লিকেশনটি বানানোর জন্য একটি ডুকিউমেন্ট পাঠাবে। সেটি একেবারে হোক বা মেয়াদি হোক।
উনি বললেন, ‘Thank You.
আমি বললাম, ‘Welcome’
 
বুঝতে পারছেন কোন ধরনের বায়ার !!! আসলে উনি বায়ার না নতুন গজানো ফ্রিল্যান্সার । বিড করে কোনো অনলাইন প্লেস থেকৈ প্রজেক্ট পেয়েছে। এবার তিনি স্বদেশী ভাইদের পেছনে বাঁ……. দিয়ে কিছু টাকা হাতিয়ে নিবেন।
যেখানে বিদেশেী বায়াররা আলোচনার জন্য বা পরামর্শের জন্য পে করে সেখানে আমাদের বায়াররা …………………!!!
 
কিছু দিন আগে বাংলাদেশী বায়ার লগো ডিজানের জন্য আমাকে ফেইসবুকে নক দেয়। প্রায় এক ঘন্টা ইনবেক্স চ্যাট চলাল পর উনি আমাকে বলে আপনাকে আমি দুই একদিন পর নক দিবো। ভালো কথা আমি বললাম – ঠিক আছে। দুই একদিন তো দূরের কথা উনি নক দিলো আরো দুই সপ্তাহ পর।
বললো, ‘ভাই, আমি তো লগো ফ্রি অর্ডার দিয়েছি!!! আপনি চাইলে করতে পারেন , যদি ভালো লাগে তাহলে আপনাকে পে করবো।
আমি : ভাই, আমরা প্রফেশনাল , কাজ করলে কাজের দাম দিতে হবে। আপনার চয়েস হোক না হোক। শুধু শুধু আমার সময় অপচয় করার মানে হয় না। ভালো থাকবেন।
এই হলো আমাদের অবস্থা বায়ারদের ও ফ্রিল্যান্সদের অবস্থা।
 
এবার আসা যাক যারা নতুন শিখতে চাচ্ছেন তাদের কথা একটু বলি। আমাকে অনেকে নক করে । প্রতিদিন কমপক্ষে 5-10 জন। ভাই আমি ওয়েব ডিজাইন শিখতে চাই, লগো ডিজাইন শিখতে চাই, সফ্টওয়্যার ডেভেলোপার হতে চাই…………..এভাবে হাজারো শিরোনামে। যদি আমি এসব মানুষকে ধোকা দিই তাহলে আমার ফ্রিল্যান্সিং না করলেও চলবে। প্রতিমাসে কয়েক হাজার টাকা এমনিতে চলে আসবে।
 
আমি তাদেরকে সব সময় সাজেশান দিই ভাই, কাজ যদি শিখতে চান তাহলে যেকোনো একটি ভালো প্রতিষ্ঠানে গিয়ে শিখুন। তাহলে একটি সার্টিফিকেটও পাবেন এবং স্কিলপুলও হবে। কিন্তু তারপরও অনেক বলে ভাই টাকা নাই , কি করবো??? তখন আমি বলি টাকা না থাকলে কিস্তি হিসেবে শোধ করে দিবেন। আমি প্রথমে Logo Design ও SEO নিয়ে কাজ করতাম। পরবর্তীতে আইবি থেকে কোর্স করে ফুলট্রাম Asp.NET ডেভেলোপার হয়ে গেছি। যদিও কোর্সটা সম্পূর্ণ ফ্রি ছিলো । এটি একটি ফ্রি-স্টুডেন্ট স্কলালশীপ । আরো জানতে হলে গুগল করে শিখে নিবেন।
 
তাছাড়া অনেক ভালো ভালো প্রতিষ্টান আছে। যেমন কোডার ট্রাস্ট, ঢাকা। এবং এনবিআইটি, চট্টগ্রাম। এগুলো ভালো কোর্স করায়।
 
তারপরও অনেকে বুঝে না ; কয়েকদিন কোর্স করে কোর্স থেকে চলে যায়। এর ফলে প্রতিষ্টানের বিশাল লস্ট হয়। তাদের ব্যাচে সমস্যা সৃষ্টি হয়। কারণ একটি ব্যাচ রানিং অবস্থা যদি কেউ অর্ধেক টাকা না দিয়ে চলে যায় তাহলে ট্রেইনারকে টাকা দিতে হিমশিম খেতে হয়। সেজন্য অনেকে কিস্তি দিয়ে স্টুডেন্ট ভর্তি করাতে চাই না।
 
নতুনরা আপনার সাবধান হোন। তাহলে একটি ভালো পরিবেশ সৃষ্টি হবে। আর যারা বায়ার আছেন তারাও একটু সচেতন হোন , ভালো কাজ আদায় করুন। যথোপযুক্ত কাজের মূল্যায়ন করুন।
 
তাহলে আমাদের দেশ একটি ভালো আইটি প্লাটফর্ম পাবে। কিছু বেকারের কর্মসংস্থান হবে।
ধন্যবাদ, সবাইকে ভুল হলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবে এবং চোখে আঙ্গুল দিয়ে ধরিয়ে দিবেন।
 
মো: সাখাওয়াত হোসাইন সোহেল